পুরুষের নামাজ – ছষ্ঠ খন্ড

কিয়াম (১) নামাজ আদায়ের পূর্বে কিবলার দিকে মুখ করে দাঁড়ানো।[1] (২) অতঃপর, যে নামাজ আদায় করা হবে তার নিয়ত করা এবং হাত উঠানো যতক্ষণ না বুড়ো আঙ্গুল কানের লতির বরাবর হয়।[2] (৩) নামাজে দাঁড়ানোর সময় সর্বোচ্চ সম্মানের সাথে দাঁড়ানো। উভয় পা কিবলার দিকে মুখ করা এবং তাদের মধ্যে প্রায় চার …

Read More »

হযরত আলী (রাদ্বীয়াল্লাহু আনহু) এর উচ্চ মর্যাদা

রসুলুল্লাহ (সল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসল্লাম) হযরত আলী (রাদ্বীয়াল্লাহু আনহু) কে বললেন: أنت مني وأنا منك (أي في النسب والمحبة) (صحيح البخاري، الرقم: ٢٦٩٩) “তুমি আমার থেকে এবং আমি তোমার থেকে (অর্থাৎ আমরা একই বংশের এবং আমরা আমাদের ভালবাসার বন্ধনে একে অপরের অংশ)।” (সহীহ বুখারী #২৬৯৯) হযরত আলী (রাদ্বীয়াল্লাহু আনহু) এর ন্যায়বিচার …

Read More »

আল্লাহ তা’আলার কোন ব্যক্তির সাথে বিশেষভাবে আচরণ করা

عن أبي طلحة الأنصاري رضي الله عنه قال: أصبح رسول الله صلى الله عليه وسلم يوما طيب النفس يرى في وجهه البشر قالوا: يا رسول الله أصبحت اليوم طيب النفس يرى في وجهك البشر قال: أجل أتاني آت من ربي عز وجل فقال: من صلى عليك من أمتك صلاة كتب …

Read More »

রসুলুল্লাহ (সল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসল্লাম) এবং হযরত আলী (রাদ্বীয়াল্লাহু আনহু) এর মধ্যে ঘনিষ্ঠ বন্ধন

রসুলুল্লাহ (সল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসল্লাম) হযরত ফাতিমা (রাদ্বীয়াল্লাহু আনহাকে) বললেন, إني وإياك وهذا النائم – يعني عليا – وهما – يعني الحسن والحسين – لفي مكان واحد يوم القيامة (أي في الجنة) (المستدرك للحاكم، الرقم: ٤٦٦٤) “নিশ্চয়ই আমি, তুমি, এই ব্যক্তি যে ঘুমাচ্ছে (হযরত আলী রাদ্বীয়াল্লাহু আনহুকে উল্লেখ করে) এবং এই …

Read More »

কোন ব্যক্তির জন্য ফেরেশতাদের ক্ষমা চাওয়া ‎

عن أنس رضي الله عنه عن النبي صلى الله عليه وسلم قال: ما من عبدين متحابين في الله يستقبل أحدهما صاحبه فيصافحه ويصليان على النبي صلى الله عليه وسلم إلا لم يفترقا حتى تغفر ذنوبهما ما تقدم منهما وما تأخر (مسند أبي يعلى الموصلي، الرقم: 2960)[1] হযরত আবু হুরায়রা ‎(রাদ্বীয়াল্লাহু …

Read More »

যে আল্লাহ এবং তাঁর রসুল (সল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসল্লাম) কে ভালবাসে

খায়বারের দিন রসুলুল্লাহ (সল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসল্লাম) বললেন: لأعطين الراية غدا رجلا يفتح على يديه، يحبّ الله ورسوله، ويحبّه الله ورسوله. في الغد، دعا رسول الله صلى الله عليه وسلم عليا وأعطاه الراية (من صحيح البخاري، الرقم: ٣٠٠٩) “আগামীকাল অবশ্যই আমি পতাকা এমন একজনের হাতে তুলে দেব যার মাধ্যমে (আল্লাহ) বিজয় …

Read More »

হযরত আলী (রাদ্বিয়াল্লাহু আনহু) সম্পর্কে খারাপ কথা বলার তীব্রতা

রসলুল্লাহ (সল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসল্লাম) বলেছেন: من سبّ عليا فقد سبّني (مسند أحمد، الرقم: ٢٦٧٤٨) “যে আলী সম্পর্কে খারাপ কথা বলে সে আমার সম্পর্কে খারাপ কথা বলেছে।” (মুসনাদে আহমাদ #২৬৭৪৮) আখেরাতের জন্য হযরত আলী (রাদ্বিয়াল্লাহু আনহু)-এর ভয় কুমাইল বিন যিয়াদ (রাহিমাহুল্লাহ) নিম্নলিখিত বর্ণনা করেছেন: একবার আমি হযরত আলী (রাদ্বীয়াল্লাহু আনহু)-এর সাথে …

Read More »

সূরা যিলযাল

إِذَا زُلْزِلَتِ الْأَرْضُ زِلْزَالَهَا ‎﴿١﴾‏ وَأَخْرَجَتِ الْأَرْضُ أَثْقَالَهَا ‎﴿٢﴾‏ وَقَالَ الْإِنسَانُ مَا لَهَا ‎﴿٣﴾‏ يَوْمَئِذٍ تُحَدِّثُ أَخْبَارَهَا ‎﴿٤﴾‏ بِأَنَّ رَبَّكَ أَوْحَىٰ لَهَا ‎﴿٥﴾‏ يَوْمَئِذٍ يَصْدُرُ النَّاسُ أَشْتَاتًا لِّيُرَوْا أَعْمَالَهُمْ ‎﴿٦﴾‏ فَمَن يَعْمَلْ مِثْقَالَ ذَرَّةٍ خَيْرًا يَرَهُ ‎﴿٧﴾‏ وَمَن يَعْمَلْ مِثْقَالَ ذَرَّةٍ شَرًّا يَرَهُ ‎﴿٨﴾‏ যখন পৃথিবী তার খিঁচুনিতে কেঁপে উঠবে। এবং পৃথিবী তার সমস্ত বোঝা নিক্ষেপ করবে। এবং মানুষ বলবে, “এর কি হয়েছে?” সেই দিন, …

Read More »

ভবিষ্যত এবং অতীত (সগিরা) গুনাহের ক্ষমা

عن أنس رضي الله عنه عن النبي صلى الله عليه وسلم قال: ما من عبدين متحابين في الله يستقبل أحدهما صاحبه فيصافحه ويصليان على النبي صلى الله عليه وسلم إلا لم يفترقا حتى تغفر ذنوبهما ما تقدم منهما وما تأخر (مسند أبي يعلى الموصلي، الرقم: 2960)[1] হযরত আনাস বিন মালিক …

Read More »

হযরত আলী (রাদ্বীয়াল্লাহু আনহু) এর সম্মানিত পদমর্যাদা

রসুলুল্লাহ (সল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসল্লাম) একবার হযরত আলী (রাদ্বীয়াল্লাহু আনহু) কে বললেন: “তুমি কি সন্তুষ্ট নও যে, আমার কাছে তোমার মর্যাদা মূসা (আলাইহিস সালাম)-এর সাথে হারুন (আলাইহিস সালাম)-এর মর্যাদার মত হবে, কিন্তু এতটুকুই পার্থক্য যে আমার পরে আর কোন নবী আসবে না?” (সহীহ বুখারী #৩৭০৬) রসুলুল্লাহ (সল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসল্লাম)-এর হযরত আলী …

Read More »